ঢিলেঢালা ভাবে হরতাল পালিত: আবারও দুই দিন অবরোধের ঘোষণা বিএনপির

প্রচ্ছদ » জাতীয় » ঢিলেঢালা ভাবে হরতাল পালিত: আবারও দুই দিন অবরোধের ঘোষণা বিএনপির
বৃহস্পতিবার, ৩০ নভেম্বর ২০২৩



---

আজকের ভোলা রিপোর্ট।।

বিএনপি ও সমমনাদের ডাকা হরতাল কর্মসূচিতে তেমন কোনো প্রভাব দেখা যায়নি রাজধানীসহ বিভিন্ন জেলা শহরগুলোতে। রাজধানী ঢাকাসহ দেশের সব জেলা শহরেই যান চলাচল ছিল প্রায় স্বাভাবিক। সড়ক-মহাসড়ক এবং শহরতলীর সড়কগুলোতে যান চলাচল করলেও দূরপাল্লার বাস চলাচল করেনি। দু’একটি দূরপাল্লার বাস ঢাকা থেকে ছেড়ে গেলেও তাতে ছিল যাত্রী সংকট। এক কথায় ঢিলেঢালাভাবেই পালিত হয়েছে বিএনপির ডাকা দেশব্যাপী হরতাল কর্মসূচি। বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর) প্রতিনিধিদের পাঠানো তথ্য এবং রাজধানীর বিভিন্ন আন্তঃজেলা বাস টার্মিনাল ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে। এছাড়া সকাল-সন্ধ্যা ১২ ঘণ্টার হরতালের মধ্যে রাজধানীতে যান চলাচল করেছে প্রায় স্বাভাবিকভাবে। রাজধানীর উত্তরা, মহাখালি, রামপুরা, পল্টন, মিরপুর এলাকায় গণপরিবহন চলাচল করতে দেখা গেছে। এছাড়া ব্যাক্তিগত গাড়ী, রিকশা, সিএনজি, লেগুনার মতো ছোট বাহনও চলাচল করতে দেখা যায়। তবে গাবতলী, মহাখালী ও সায়দাবাদ আন্তঃজেলা বাস টার্মিনাল থেকে দুরপাল্লার বাস চলাচল করেনি। সকালে দুরপাল্লার কিছু বাস ছেড়ে গেলেও সেগুলোতে যাত্রী ছিল খুব কম।

হরতালে আইনশৃঙ্খলা স্বাভাবিক রাখতে সারাদেশে পুলিশ ও র‌্যাব সদস্যদের টহল দিতে দেখা গেছে। সারাদেশে দূরপাল্লার যাত্রীবাহী বাস, পণ্যবাহী পরিবহন, তেলবাহী পরিবহনসহ অন্য যানবাহন চলাচলের জন্য বিশেষ নিরাপত্তা দিয়েছে র‌্যাব।

হরতাল সমর্থনে দেশের বিভিন্ন স্থানে মিছিল করেছে বিএনপি ও অঙ্গ সংঠনের নেতাকর্মীরা। এছাড়া রাজধানী ও রাজধানীর বাইরে ঝটিকা মিছিল-পিকেটিং করেছে বিএনপি ও সমমনা দলগুলো।

বিএনপির ডাকা হরতালের সমর্থনে সুপ্রিম কোর্টে ও সুপ্রিম কোর্ট সংলগ্ন প্রধান সড়কে মিছিল সমাবেশ করেছেন বিএনপিপন্থি আইনজীবীরা। বৃহস্পতিবার দুপুরে ইউনাইটেড ল’ইয়ার্স ফ্রন্টের (ইউএলএফ) ব্যানারে সুপ্রিম কোর্ট এলাকায় বিএনপিপন্থি আইনজীবীরা মিছিল করেন। মিছিলটি সুপ্রিম কোর্ট বার ভবনের সামনে থেকে শুরু হয়ে হাইকোর্ট মাজার গেট হয়ে সুপ্রিম কোর্টের প্রধান গেটের সামনে গিয়ে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করে। এ সময় আইনজীবীরা হরতালের সমর্থনে বিভিন্ন স্লোগান দেয়। তারা সরকারের পদত্যাগ ও নির্বাচনের তফসিল বাতিল করে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীন নির্বাচনের দাবি জানান।

সরকারের পদত্যাগ ও নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনের একদফা দাবিতে বিএনপির ডাকা হরতালের সমর্থনে মিছিল করেছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি) শাখা ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা। বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে মিছিল করেন তারা। মিছিলটি সিএন্ডবি এলাকা থেকে শুরু হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের মীর মশাররফ হোসেন হল সংলগ্ন গেটে গিয়ে শেষ হয়।

নারায়ণগঞ্জে সরকারের পদত্যাগ, নিরপেক্ষ সরকারের অধিনে নির্বাচন ও তফসিল বাতিলের দাবিতে বিএনপির ডাকা হরতাল সফল করতে ঢাকা নারায়ণগঞ্জ মহাসড়কের শিবু মার্কেট এলাকায় মিছিল করেছে ফতুল্লা যুবদল।

কুমিল্লায় ছোট যান এবং মালবাহী গাড়ি চলাচল করেছে তবে চট্টগ্রাম, ফেনী, চাঁদপুর, লক্ষ্মীপুর ও নোয়াখালী থেকে ছেড়ে আসা লোকাল বাসগুলো চোখে পড়েছে কিছুটা কম। চালকদের অভিযোগ যাত্রী সংকটে তারা বিপাকে আছেন। পরিবহন মালিক সমিতির সভাপতি কবির আহমেদ বলেন, যাত্রী কম থাকলে গাড়ি ছাড়েন না স্টাফরা। গাড়িতে প্রচুর খরচ। মালিক সমিতির পক্ষ থেকে গাড়ি চালানোর সিদ্ধান্ত বহু আগের। এটা এখনো বহাল আছে।

আবারও দুই দিন অবরোধের ঘোষণা বিএনপির

সরকারের পদত্যাগের একদফাসহ বিভিন্ন দাবিতে আবারও দুই দিন টানা ৪৮ ঘণ্টার সর্বাত্মক অবরোধের ঘোষণা দিয়েছে বিএনপি। আগামী রোববার ভোর ৬টা থেকে পরবর্তী ৪৮ ঘণ্টা মঙ্গলবার ভোর ৬টা পর্যন্ত দেশব্যাপী এ কর্মসূচি ডেকেছে দলটি। এ নিয়ে গত ২৮ অক্টোবরের পর বিএনপি নবম দফা অবরোধ কর্মসূচি ঘোষণা করল।

বৃহস্পতিবার নির্বাচনের মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ দিন সকাল-সন্ধ্যা ১২ ঘণ্টার হরতাল কর্মসূচি শেষ হওয়ার আগেই এক ভিডিও বার্তায় এই কর্মসূচি ঘোষণা করেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। এক দফা দাবিতে এই অবরোধ কর্মসূচি সফল করতে দলের ও সমমনা জোটের সব নেতাকর্মীকে রাজপথে অবস্থান করার আহ্বান জানান তিনি।

ভিডিও বার্তায় রিজভী বলেন, ‘আমাদের আন্দোলনের চলমান কর্মসূচি চলছে। শেখ হাসিনাকে পদত্যাগ করে নির্বাচনকালীন তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করতে হবে। দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি ও তাকে বিদেশে উন্নত চিকিৎসার জন্য প্রেরণ ও দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ সব নেতাকর্মীদের মুক্তি দিতে হবে। এই এক দফার চলমান আন্দোলন বিজয়ের পথে ধাবিত হচ্ছে। বিজয় অর্জন না হওয়া পর্যন্ত বিএনপি ও সমমনা জোটের নেতাকর্মীরা দৃঢ় প্রত্যয় নিয়ে, এক অকুণ্ঠ শপথ নিয়ে রাস্তায় কর্মসূচি বাস্তবায়ন করবেন।’

গত বুধবার একদিনের অবরোধ কর্মসূচি এবং বৃহস্পতিবার সকাল-সন্ধ্যা হরতাল কর্মসূচি সারাদেশে ‘সফলভাবে’ পালন করায় বিএনপি ও সমমনা জোটের নেতাকর্মীদের অভিনন্দন জানান রিজভী।

সরকারের পতন ও নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে গত এক বছরেরও বেশি সময় ধরে আন্দোলন করে আসছে বিএনপি। এর জের ধরে গত ২৮ অক্টোবর ঢাকায় সমাবেশের সময় নাশকতার ঘটনা ঘটলে হরতাল ও অবরোধ কর্মসূচি দেয়া শুরু করে দলটি। সাপ্তাহিক ছুটি শুক্র ও শনি এবং সপ্তাহের এক কর্মদিবস মঙ্গলবার বাদ দিয়ে প্রতিদিন হরতাল ও অবরোধ কর্মসূচি পালন করে আসাছে দলটি।

সমাবেশের পর বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে ২৯ অক্টোবর প্রথম দফা হরতাল পালন করে দলটি। এরপর ৮ দফায় ১৬ দিন অবরোধ এবং মোট ৩ দফায় ৪ দিন হরতাল পালন করে তারা। অর্থাৎ ২৮ অক্টোবরের পর মোট ২০ দিন অবরোধ হরতাল কর্মসূচি পালন করে দলগুলো। রোববার থেকে ডাকা কর্মসূচি হবে বিএনপির নবম দফা অবরোধ কর্মসূচি।

বিএনপি টানা কর্মসূচি দিয়ে এলেও এর প্রভাব ধীরে ধীরে কমে আসছে। বিএনপির পক্ষ থেকে ‘দুর্জয় সাহস’ দেখানোর আহ্বান জানালেও রাজপথে দলের নেতাকর্মীদের তৎপরতা দেখা যাচ্ছে না।

এর মধ্যে ৭ জানুয়ারির ভোটকে সামনে রেখে নির্বাচনের প্রস্তুতি এগিয়ে নিচ্ছে নির্বাচন কমিশন। বিএনপি ও সমমনা দলগুলো ভোট থেকে দূরে থাকলেও আওয়ামী লীগ ও সমমনা, সংসদে প্রধান বিরোধী দল জাতীয় পার্টি এবং কয়েকটি নতুন দলের ভোট প্রস্তুতি এগিয়ে চলছে।

বাংলাদেশ সময়: ২৩:২৮:৫৮   ৯২ বার পঠিত  




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

জাতীয়’র আরও খবর


অষ্ট্রেলিয়া ডে পুরষ্কার পেলেন নেহাল নাফসি রুপাই
আজ ভোলায় আসছেন শিল্পমন্ত্রী ও বিদ্যুৎ জ্বালানি খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী
এখন দেখার বিষয় ইউরোপ আমেরিকা কী কার্ড ফেলে: ব্যারিস্টার পার্থ
জয়ে শুরু বরিশালের
শপথ নিতে মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীরা বঙ্গভবনে
আগামীকাল দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন : সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন
একটি কেন্দ্রে একটি জাল ভোট পড়লেও ঐ কেন্দ্রের নির্বাচন বন্ধ হয়ে যাবে: ভোলায় ইসি আহসান হাবিব
ভোলার গ্যাস সিএনজি আকারে সরবরাহ শুরু হচ্ছে আজ
ঢাকাস্থ ভোলা জার্নালিস্টস ফারামের নতুন কমিটি
ভোলায় সার কারখানা করার সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

আর্কাইভ