ইন্টারনেট প্যাকেজ নিয়ে প্রতারণা

প্রচ্ছদ » সম্পাদকীয় » ইন্টারনেট প্যাকেজ নিয়ে প্রতারণা
বুধবার, ৮ নভেম্বর ২০২৩



 

দেশে স্মার্টফোন ব্যবহারকারীর সংখ্যা বৃদ্ধির পাশাপাশি তাতে ইন্টারনেট ব্যবহারের পরিমাণও বেড়েছে। গ্রাহকদের জন্য মোবাইল ফোন অপারেটররা নানা লোভনীয় প্যাকেজ দিয়ে থাকে। আর এতে আকৃষ্ট হয়ে গ্রাহকরা কিনছেনও প্রচুর। কিন্তু সেই ইন্টারনেট প্যাকেজ নিয়েই অপারেটররা প্রতারণা করছে বলে অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার যুগান্তরের খবরে প্রকাশ, মোবাইল ফোন অপারেটররা বাজারে ছোট, মাঝারি নানা প্যাকেজ ছেড়ে মানুষকে বিভ্রান্ত করে শতকোটি টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। প্যাকেজের মেয়াদ শেষ হওয়ার আগে নেট বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। আবার একটু ব্যবহারের পরই বলা হচ্ছে-মেগাবাইট (এমবি) শেষ। কিন্তু কীভাবে তা শেষ হচ্ছে, এর কোনো জবাব নেই। যদিও এমনটি হওয়ার কথা নয়। কারণ, ‘বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ আইন-২০০১ (সংশোধিত ২০১০)’-এর বলে প্রণীত নির্দেশিকার ৭.৬ ধারায় বলা আছে, কোনো প্যাকেজ নির্দিষ্ট সময়ের আগে বন্ধ করার ক্ষেত্রে মোবাইল অপারেটর বাংলায় এসএমএস-এর মাধ্যমে তা গ্রাহককে অবহিত করবে। এক্ষেত্রে অব্যবহৃত ডাটা/মিনিট/এসএমএস অবশ্যই মোবাইল অপারেটরকে গ্রাহক কর্তৃক নির্দিষ্ট ক্রয়কৃত নতুন প্যাকেজে যুক্ত করতে হবে। কিন্তু পরিতাপের বিষয়, এ আইন মানা হচ্ছে না। শুধু তাই নয়, ফাইভজির যুগে খোদ রাজধানীতেই মিলছে না থ্রিজি সুবিধা। এরই মধ্যে সরকার বহুল ব্যবহৃত ১৫ ও ৩ দিনের দুটি প্যাকেজ বাতিল করেছে। অভিযোগ ছিল, এ দুই প্যাকেজের আড়ালে নেটের ব্যবহার না হলেও শত শত কোটি টাকা হাতিয়ে নিত অপারেটররা। কিন্তু বাতিলের পর দেখা গেছে অপারেটররা এ সুযোগে সব প্যাকেজের দাম বাড়িয়ে দিয়েছে।

আশার কথা, অপারেটর কর্তৃক টকটাইম ও ইন্টারনেট প্যাকেজের উচ্চমূল্য নিয়ন্ত্রণে উদ্যোগী হয়েছে সরকার। চলতি মাসেই সব মোবাইল সেবাদাতা সংস্থাকে মেয়াদ অনুযায়ী সহনীয় দামে প্যাকেজ বিক্রির জন্য নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এখন দেখার বিষয় তা কতটুকু কার্যকর হয়। অতীতে এমন উদ্যোগ নেওয়া হলেও তা আলোর মুখ দেখেনি। দেশ এখন ডিজিটালের গণ্ডি ছাড়িয়ে স্মার্টের দিকে অগ্রসর হচ্ছে। শুধু শহরাঞ্চলেই নয়, তৃণমূলের মানুষের একটি বড় অংশ যোগাযোগের পাশাপাশি বিনোদন ও অন্যান্য কাজে ইন্টারনেট ব্যবহার করে। বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে হলে ইন্টারনেট সুবিধাকে সহজলভ্য করতে হবে। পাশাপাশি গ্রাহক যেন প্রতারণার শিকার না হন, তাও নিশ্চিত করতে হবে। গ্রাহকের ভোগান্তি নিরসনে সরকার দ্রুত পদক্ষেপ নেবে, এটাই প্রত্যাশা।

বাংলাদেশ সময়: ১৪:১৮:০১   ৪২৪ বার পঠিত  




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

সম্পাদকীয়’র আরও খবর


ডলার বাজারে অব্যাহত অস্থিরতা
ইন্টারনেট প্যাকেজ নিয়ে প্রতারণা
রাজনৈতিক সংলাপের তাগিদ : সমঝোতার বিকল্প নেই
বাজারে কারসাজি
নৌ দুর্ঘটনা রোধে আইনের কঠোর প্রয়োগ নিশ্চিত করুন
চিকিৎসক ধর্মঘট: রোগীদের জিম্মি করে কর্মসূচি অনৈতিক
নৌযানে অগ্নিদুর্ঘটনা রোধে পদক্ষেপ নিন
ফিটনেসহীন নৌযান: ভোলা নৌপথে দ্রুত ব্যবস্থা নিন
চরফ্যাশনের ঢালচর বনের ঢাল কারা?
বাজারে ভোক্তাদের নাভিশ্বাস : সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোর অস্তিত্ব দৃশ্যমান হচ্ছে না



আর্কাইভ