চরফ্যাশনে ভূমিদস্যু মুছার নেতৃত্বে নারী ও শিশুর ওপর সন্ত্রাসী হামলা

প্রচ্ছদ » অপরাধ » চরফ্যাশনে ভূমিদস্যু মুছার নেতৃত্বে নারী ও শিশুর ওপর সন্ত্রাসী হামলা
মঙ্গলবার, ১৪ মে ২০২৪



---

স্টাফ রিপোর্টার ॥

ভোলার ভূমিদস্যু মুছার নেতৃত্বে নারী ও শিশুর ওপর সন্ত্রাসী হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। চরফ্যাশন উপজেলার এওয়াজপুর ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডে ১১৭ বছরের ভোগ দখলীয় বসত ভিটার যবর দখল ঠেকাতে গিয়ে ৬জন আহত হয়ে ভোলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এসময় নারীদের উপর শ্লীলতাহানী ও তাদের কাছে থাকা স্বর্ণালঙ্কার ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগও পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

ভূক্তভোগীদের অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, চরফ্যাশন উপজেলার এওয়াজপুর মৌজায় এসএ ১৩১নং খতিয়ান ও ডিয়ারা ৩৪নং খতিয়ানে ৩ একর ৩৯ শতাংশ জমিতে প্রায় ১১৭ বছর যাবৎ ঘর দরজা, বাগান বাগিচা ও পুকুর সৃজন করে ভোগ দখল করে আসছে আফসার আলী গংরা। কিছু দিন পূর্বে ওই জমির উপর লোলুপ দৃষ্টি পরে স্থানীয় ভূমিদস্যু চক্রের মূল হোতা জয়নাল আবদীনের ছেলে মুছা, আবুল কালামের ছেলে আব্বাস ও আজাদের ছেলে জোবায়ের গংদের। বিগত দিনে এ ভূমিদস্যু চক্রের লোকেরা আফসার আলীর পরিবারকে ওই বসত ভিটা থেকে উৎখাত করার জন্য বিভিন্ন ভাবে অপ-চেষ্টা চালাতে থাকে। এমনকি তারা আফসার আলীর পুকুরের মাছ ও তাদের সৃজন করা গাছ কাটাসহ বিভিন্ন জুলুম অত্যাচার অব্যাহত রাখে।

কিছু দিন পূর্বে আফসার আলীর ছেলে সৈয়দ আহাম্মেদ ও মিজানুর রহমান তাদের বাবা আফসার আলীর রেখে যাওয়া দীর্ঘ দিনের ভোগ দখলীয় বসত ঘরটি মেরামত করার উদ্দেশ্যে ভেঙ্গে নতুন করে ঘর উত্তোলনের প্রস্তুতি নেয়। এ সময় এ কাজে বাঁধা প্রাদান করে উল্লেখিত ভূমিদস্যু মুছা, আব্বাস ও জোবায়ের গংরা। পরবর্তিতে এ ব্যাপারে মুছা গংদের পক্ষ থেকে স্থানীয় থানায় একটি অভিযোগ পত্র দাখিল করা হয়। উক্ত অভিযোগের ভিত্তিতে গত ১২ মে পুলিশ এরয়াজপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যানকে সাথে নিয়ে আফসার আলীর বাড়িতে যায়। এসময় তারা আফসার আলীর ছেলেদের পূর্বের নির্মিত স্থানেই ঘর উত্তোলনের জন্য নির্দেশ প্রদান করে চলে আসে। এ নির্দেশ মোতাবেক ১৩ মে আফসার আলীর ছেলেরা ঘর উত্তোলনের কাজ শুরু করে। এসময় পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে, মুছা, আব্বাস, জোবায়ের, আবুল খায়ের, ইউসুফ, আবুল কালাম, ফজলুল হকসহ ১০/১২ জনের একটি সন্ত্রাসী দল দেশীয় অস্ত্র শস্ত্রে সজ্জিত হয়ে ফের ঘর উত্তোলনের কাজে বাঁধা প্রাদান করে। এসময় তাদের এ অবৈধ বাঁধা উপেক্ষা করে কাজ শুরু করলে, মনির, সৈয়দ আহাম্মদ ও সৈয়দ আহাম্মদের স্ত্রী শাহানাজ বেগম, ও তার দুই মেয়ে তানিয়া ওরফে খাদিজা, সাদিয়া বেগম ও মনিরের শিশু সন্তান মাহেরকে এলাপাথারী পিটিয়ে গুরুতর আহত করে সন্ত্রাসীরা। অন্যদিকে নারীদের উপর শ্লীলতাহানী ও আহতদের কাছে থাকা নগদ টাকা ও স্বর্ণালঙ্কার ছিনিয়ে নিয়ে যায় সন্ত্রসীরা। এ সময় আহতদের পক্ষ থেকে ৯৯৯ এ ফোন দিলে স্থানীয় থানার পুলিশ এসে তাদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পাঠায়।

এ ব্যাপারে তদন্ত সাপেক্ষে প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেণ ভূক্তোভোগী আফসার আলীর পরিবার।

বাংলাদেশ সময়: ২:০০:৪১   ৬৫ বার পঠিত  




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

অপরাধ’র আরও খবর


পশ্চিম ইলিশায় ৩ ঘরে দূদর্শ চুরি
ভোলায় মেঘনা নদী থেকে পাঙ্গাস মাছের অবৈধ পোনা শিকারের ৫টি চাই ধ্বংস
ভোলায় দুই মাদক কারবারীকে সাজা
তজুমদ্দিনে ঢাকাগামী লঞ্চ থেকে ৩শ কেজি পাঙ্গাসের পোনা আটক
ওমরাহ পাঠানোর নামে হাজী কামালের প্রতারণা
চরফ্যাশনে ভূমিদস্যু মুছার নেতৃত্বে নারী ও শিশুর ওপর সন্ত্রাসী হামলা
লালমোহনে জমি দখলের জন্য মালিকের উপর হামলার অভিযোগ
দালালদের খপ্পড়ে পড়ে নিঃস্ব জীবন ॥ চরফ্যাশন উপজেলার পাচঁ প্রবাসীর আর্তনাদ!
সৎ মায়ের বিরুদ্ধে সম্পত্তি আত্মসাতের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন
চরফ্যাশনে ব্যবসায়ীকে হাত পা বেধেঁ মারধরের অভিযোগ



আর্কাইভ