আওয়ামী লীগ সরকারের এসব উন্নয়ন বিএনপি দেখে না: তোফায়েল আহমেদ

আদিল হোসেন তপু ॥
তোফায়েল আহমেদ বলেন, মহান স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় আমরা সকলে একসাথে যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেছি। আমাদের ¯ে¬াগান ছিল- “জাগো জাগো বাঙ্গালি জাগো,”। “বীর বাঙ্গালি অস্ত্র ধর, বাংলাদেশ স্বাধীন কর। কে হিন্দু, কে মুসলিম সেই ভেদাভেদ ছিল না। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির মধ্য দিয়েই বাংলাদেশের জন্ম। আজও আমরা সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রেখেছি। বিশেষ করে ভোলায় আমরা সকল ধর্মের মানুষ এক এবং অভিন্ন হয়ে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রেখে অত্যন্ত শান্তিতে বসবাস করছি। তিনি বলেন, আমাদের ধর্মের দিক থেকে কেউ মুসলিম, কেউ হিন্দু। কিন্তু মনের দিক থেকে আমরা সকলে এক। আমাদের ঈদে হিন্দু ভাইরা আসে। তাদের পূজায় আমরা যাই। আমাদের মাঝে কোন ভেদাভেদ নাই। বৃহ¯পতিবার দুপুরে ভোলা জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তোফায়েল আহমেদ এসব কথা বলেছেন।

---

মতবিনিময় সভায় তোফায়েল আহমেদ আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেল। বাংলাদেশের গ্রামগুলো আজ শহরে পরিণত হয়েছে। প্রতিটি গ্রাম আজ আলোকিত। ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ। আমরা পদ্মাসেতু তৈরি করেছি। কর্ণফুলী ট্যানেলের কাজও দ্রুত এগিয়ে চলছে। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে আমরা এগিয়ে চলেছি। আরও অনেক দূর এগিয়ে যাবো। আওয়ামী লীগ সরকারের এসব উন্নয়ন বিএনপি দেখে না।
তোফায়েল আহমেদ আরও বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর দুটি স্বপ্ন ছিল। এক. বাংলাদেশ স্বাধীন করা। দুই. ক্ষুধ ও দারিদ্রমুক্তা সোনার বাংলা গড়ে তোলা। প্রথমটি জাতির জনক করে গেছেন। দ্বিতীয়টি করার জন্য বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা কাজ করে যাচ্ছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ উন্নয়নশীল দেশে উন্নিত হয়েছে।  সেদিন বেশি দূরে নয়, যেদিন বাংলাদেশ হবে ক্ষুধা মুক্ত, দারিদ্রমুক্ত বাংলাদেশ হবে ইনশাআল্লাহ।
তোফায়েল আহমেদের ভোলাস্থ বাস ভবনে আনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি গৌরাঙ্গ চন্দ্র দে। এসময় বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মইনুল হোসেন বিপ্লব, জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি গৌরাঙ্গ চন্দ্র দেসহ পূজা উদযাপন পরিষদের নেতৃবৃন্দ।
মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি আবদুল মমিন টুলু,  জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক জহুরুল ইসলাম নকিব, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম গোলদার, সদর উপজেলা ভাইরাস চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোঃ ইউনুছ প্রমূখ।
পূজা উদযাপন পরিষদের নেতৃবৃন্দ জানান, এ বছর ভোলা সদর উপজেলায় ২৭টিসহ জেলায় মোট ১১৬টি ম-পে পূজার আয়োজন করা হয়েছে।
মতবিনিময় সভা শেষে তোফায়েল আহমেদ ব্যক্তিগত তহবিল থেকে সদর উপজেলার প্রতিটি ম-পের জন্য ৪০ হাজার টাকা করে উপহার স্বরূপ প্রদান করা হয়।


এ বিভাগের আরো খবর...
তজুমদ্দিনের মেঘনায় মুক্তিপণের দাবীতে ১৫ জেলে অপহরণ তজুমদ্দিনের মেঘনায় মুক্তিপণের দাবীতে ১৫ জেলে অপহরণ
ভোলায় খামারিদের পশুর মানবৃদ্ধি করার লক্ষ্যে আদর্শ প্রাণীসেবার সভা অনুষ্ঠিত ভোলায় খামারিদের পশুর মানবৃদ্ধি করার লক্ষ্যে আদর্শ প্রাণীসেবার সভা অনুষ্ঠিত
লালমোহনে নিউমোনিয়া ও ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হচ্ছে শিশুরা লালমোহনে নিউমোনিয়া ও ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হচ্ছে শিশুরা
ভোলায় জেলা পরিষদের উদ্যোগে শিক্ষা বৃত্তি ও গুণী সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত ভোলায় জেলা পরিষদের উদ্যোগে শিক্ষা বৃত্তি ও গুণী সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত
লালমোহনে শিশু ধর্ষণের অভিযোগে মামলা লালমোহনে শিশু ধর্ষণের অভিযোগে মামলা
চরফ্যাশনে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহ এবং বিজ্ঞান অলিম্পিয়াড অনুষ্ঠিত চরফ্যাশনে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহ এবং বিজ্ঞান অলিম্পিয়াড অনুষ্ঠিত
ভোলায় জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় নেতাকে সংবর্ধনা ভোলায় জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় নেতাকে সংবর্ধনা
বোরহানউদ্দিনে শীতার্তদের কম্বল বিতরণ বোরহানউদ্দিনে শীতার্তদের কম্বল বিতরণ
ভোলার বাপ্তায় মাদ্রাসা ছাত্রদের মাঝে আর.আর হেল্প লাইনের পক্ষ থেকে কম্বল বিতরণ ভোলার বাপ্তায় মাদ্রাসা ছাত্রদের মাঝে আর.আর হেল্প লাইনের পক্ষ থেকে কম্বল বিতরণ
চরফ্যাশনে জমিজমার বিরোধের জেরধরে এক গৃহবধূ হত্যা ॥ আহত-১ চরফ্যাশনে জমিজমার বিরোধের জেরধরে এক গৃহবধূ হত্যা ॥ আহত-১

আওয়ামী লীগ সরকারের এসব উন্নয়ন বিএনপি দেখে না: তোফায়েল আহমেদ
(সংবাদটি ভালো লাগলে কিংবা গুরুত্ত্বপূর্ণ মনে হলে অন্যদের সাথে শেয়ার করুন।)
tweet

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)